gp boishakh
gp boishakh
gp boishakh

এনইআইআর

ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর)

ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর)-এর কার্যক্রম ০১ জুলাই ২০২১ তারিখ থেকে পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হবে।  এনইআইআর-এ গ্রাহকের জাতীয় পরিচিতি নম্বর ও সিম নম্বর (এমএসআইএসডিএন)-এর সাথে ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের আইএমইআই সম্পৃক্ত করে নিবন্ধন করা হবে। ফলে ০১ জুলাই ২০২১ তারিখ হতে সেটসমূহ বন্ধ হবে না। ০১ জুলাই ২০২১ তারিখ হতে নতুন যে সকল মোবাইল ফোন নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হবে তা প্রাথমিকভাবে নেটওয়ার্কে সচল থাকবে। যে সকল হ্যান্ডসেট বৈধ হবে না সেগুলো সম্পর্কে গ্রাহককে এসএমএস-এর মাধ্যমে অবহিত করে পরীক্ষাকালীন সময় তিন মাসের জন্য নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

হ্যান্ডসেট ক্রয় বা বিক্রয়ের পূর্বে করণীয়

০১ জুলাই ২০২১ তারিখ হতে যেকোনো মাধ্যম হতে (বিক্রয় কেন্দ্র, অনলাইন বিক্রয় কেন্দ্র, ই-কমার্স সাইট ইত্যাদি) মোবাইল হ্যান্ডসেট ক্রয়ের পূর্বে অবশ্যই হ্যান্ডসেটটির বৈধতা যাচাই করবেন এবং ক্রয়কৃত হ্যান্ডসেটের ক্রয় রশিদ সংরক্ষণ করবেন। মোবাইল হ্যান্ডসেটটি বৈধ হলে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে এনইআইআর সিস্টেমে নিবিন্ধিত হয়ে যাবে।

IMEI জানুন

ধাপ ১

ধাপ ২

ধাপ ৩

বিদেশ থেকে ক্রয়কৃত বা উপহারপ্রাপ্ত মোবাইল হ্যান্ডসেট নিবন্ধন প্রক্রিয়া

বিদেশ থেকে ব্যক্তি পর্যায়ে বৈধভাবে ক্রয়কৃত অথবা উপহারপ্রাপ্ত হ্যান্ডসেট স্বয়ংক্রিয়ভাবে নেটওয়ার্কে সচল হবে। দশ দিনের মধ্যে নিবন্ধন সম্পন্ন করলে উক্ত হ্যান্ডসেট বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে। উক্ত সময়ের মধ্যে নিবন্ধন সম্পন্ন করা না হলে হ্যান্ডসেটটি বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে না এবং সেগুলো সম্পর্কে গ্রাহককে এসএমএস-এর মাধ্যমে অবহিত করে পরীক্ষাকালীন নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। হ্যান্ডসেট নিবন্ধন করার পদ্ধতি নিম্নরূপ:

  • ধাপ ১: http://www.neir.btrc.gov.bd/ লিংকে ভিজিট করে আপনার ব্যক্তিগত একাউন্ট রেজিস্টার করুন।
  • ধাপ ২: পোর্টালের Special Registration সেকশনে গিয়ে মোবাইল হ্যান্ডসেটের IMEI নম্বরটি দিন।
  • ধাপ ৩: প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টের ছবি/স্ক্যান কপি (যেমন: পাসপোর্টের ভিসা/ইমিগ্রেশন তথ্যাদি, ক্রয় রশিদ ইত্যাদি) আপলোড করুন এবং Submit বাটনটি প্রেস করুন।
  • ধাপ ৪: হ্যান্ডসেটটি বৈধ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধিত হবে। হ্যান্ডসেটটি বৈধ না হলে এসএমএস-এর মাধ্যমে গ্রাহককে অবহিত করে পরীক্ষামূলক সময়ের জন্য নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নোট: মোবাইল অপারেটরের নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ার সেন্টারের সাহায্যেও বর্ণিত সেবা গ্রহণ করা যাবে।
বিঃদ্রঃ বিদ্যমান ব্যাগেজ রুলস অনুযায়ী একজন ব্যক্তি বিদেশ থেকে শুল্কবিহীন সর্বোচ্চ দুইটি এবং শুল্ক প্রদান সাপেক্ষে আরও ছয়টি হ্যান্ডসেট সাথে আনতে পারবে।

নিবন্ধিত মোবাইল হ্যান্ডসেট ডি-রেজিস্ট্রেশন করার প্রক্রিয়া

পরীক্ষামূলক সময়কালে তিন মাস ডি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই হ্যান্ডসেট হস্তান্তর করা যাবে। উল্লেখ্য যে, একজন গ্রাহকের নামে রেজিস্ট্রিকৃত যেকোনো সিম দিয়ে যেকোনো হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে ডি-রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেটের বর্তমান অবস্থা যাচাইয়ের প্রক্রিয়া:
ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেটের বর্তমান অবস্থা নিম্নবর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করে জানা যাবে।

  • ধাপ ১: মোবাইল হ্যান্ডসেট হতে *16161# নম্বরে ডায়াল করুন।
  • ধাপ ২: স্ক্রিনে প্রদর্শিত অপশন হতে Status Check অপশন সিলেক্ট করুন।
  • ধাপ ৩: অটোমেটিক বক্স আসলে হ্যান্ডসেটের ১৫ ডিজিটের IMEI নম্বরটি লিখে প্রেরণ করুন।     
  • ধাপ ৪: হ্যাঁ/না অপশন সম্বলিত একটি অটোমেটিক বক্স আসলে হ্যাঁ Select করুন।
  • ধাপ ৫: ফিরতি মেসেজের মাধ্যমে ব্যবহৃত মোবাইল ফোনের/হ্যান্ডসেটের হালনাগাদ অবস্থা জানানো হবে।

নোট: http://www.neir.btrc.gov.bd/ লিংকের মাধ্যমে বিদ্যমান সিটিজেন পোর্টাল অথবা মোবাইল অপারেটরের নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ার সেন্টারের সাহায্যে বর্ণিত সেবা গ্রহণ করা যাবে।

 

প্রয়োজনীয় তথ্য

কারও হ্যান্ডসেট চুরি হলে যথাযথ ডকুমেন্ট সাবমিট করে হ্যান্ডসেট নিষ্ক্রিয় করার কোনো ব্যবস্থা থাকবে?

রীক্ষাকালীন তিন মাস অতিবাহিত হলে হ্যান্ডসেট নিষ্ক্রিয় করার ব্যবস্থা থাকবে।

অফিসিয়াল হ্যান্ডসেটের IMEI নাম্বার বিটিআরসি ডাটাবেজে যুক্ত হতে সর্বোচ্চ কতদিন সময় লাগতে পারে?

বিটিআরসি পূর্বানুমোদন গ্রহণপূর্বক বাংলাদেশে উৎপাদিত অথবা বিদেশ থেকে আমদানীকৃত সকল হ্যান্ডসেট বিক্রয়ের পূর্বে উৎপাদনকারী/আমদানীকারক কর্তৃক বিটিআরসি ডাটাবেজ অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

একজনের নামে সর্বোচ্চ কয়টি রেজিস্টার করা যাবে?

কোনো সীমাবদ্ধতা আরোপ করা হয়নি। তবে বিদেশ থেকে হ্যান্ডসেট আনয়নের ক্ষেত্রে বিদ্যমান ব্যাগেজ রুলস অনুযায়ী একজন ব্যক্তি বিদেশ থেকে শুল্কবিহীন সর্বোচ্চ দুইটি এবং শুল্ক প্রদান সাপেক্ষে আরও ছয়টি হ্যান্ডসেট সাথে আনতে পারবে।

যদি কারও হ্যান্ডসেটে সিম ১ স্লটে নিজের নামে ও সিম ২ স্লটে অন্য কারও নামে রেজিস্ট্রেশন করা সিম চালু থাকে, তবে কোন সিম থেকে কার নামে হ্যান্ডসেট রেজিস্টার হবে?

IMEI নম্বর অনুযায়ী প্রতিটি স্লটে ব্যবহৃত সিমের বিপরীতে স্লটের ব্যবহার অনুযায়ী আলাদাভাবে রেজিস্ট্রেশন করা হবে।

বিদেশ থেকে আনা হ্যান্ডসেটের ক্ষেত্রে যে শুল্কমুক্ত দুটি হ্যান্ডসেটের কথা বলা হয়েছে- এই দুটি হ্যান্ডসেট কি ব্যক্তিগত ব্যবহৃত ফোন বাদ দিয়ে হিসেব করা হবে?

ব্যক্তিগত ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেটের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ দুটি হ্যান্ডসেট বিনা শুল্কে বিদেশ থেকে আনা যাবে।

এনইআইআর-এ বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধনের ক্ষেত্রে ফি চার্জ প্রযোজ্য? প্রযোজ্য হলে তার পরিমাণ কীভাবে নির্ধারণ করা হবে?

বিদেশ থেকে আনা মোবাইল নিবন্ধনের ক্ষেত্রে কোনোরূপ চার্জ/ফিস প্রদান করতে হবে না।

বিদেশ থেকে আনা অতিরিক্ত হ্যান্ডসেট রেজিস্টার করার জন্য কী কী ডকুমেন্ট সাবমিট করতে হবে?

বিদেশ থেকে আসার সময়ে সঙ্গে নিয়ে আসা সর্বোচ্চ দুইটি ফোন নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য/দলিল-এর তালিকা:

  • পাসপোর্ট নম্বর
  • পাসপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্তৃক প্রদত্ত আগমনের সিল সম্বলিত পাতা’র স্ক্যান/ছবি

বিদেশ থেকে শুল্ক পরিশোধ সাপেক্ষে সর্বোচ্চ ছয়টি হ্যান্ডসেট নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য/ দলিল-এর তালিকা:

  • পাসপোর্ট নম্বর
  • পাসপোর্টে ইমিগ্রেশন কর্তৃক প্রদত্ত আগমনের সিল সম্বলিত পাতা’র স্ক্যান/ছবি
  • কাস্টমস্ শুল্ক পরিশোধ সংক্রান্ত প্রমাণপত্রের স্ক্যানড কপি/ছবি

বিদেশ থেকে কুরিয়ারের মাধ্যমে আনীত ফোন নিবন্ধনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য/দলিল-এর তালিকা:

  • কমার্শিয়াল ইনভয়েসের স্ক্যান/কপি
  • প্রাপকের জাতীয় পরিচয়পত্রের স্ক্যান/কপি
  • কাস্টমস্ শুল্ক পরিশোধ সংক্রান্ত প্রমাণপত্রের স্ক্যান/কপি;

এনইআইআর-এর আওতায় অনিবন্ধিত সেটমমূহ ৩০শে জুনের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যদি নিবন্ধিত না হয়ে থাকে, সেক্ষেত্রে আমরা গ্রাহকদের কাছে কি কোনো সময় চেয়ে নিবো? যদি নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে নিবন্ধন না হয় তাহলে আমরা এই ব্যাপারে কমপ্লেইন রাখলে কী কী তথ্য গ্রাহকদের নিকট হতে সংগ্রহ করবো?

গ্রাহক কর্তৃক বর্তমানে মোবাইল ফোন নেটওয়ার্কে ব্যবহৃত সকল হ্যান্ডসেট ৩০শে জুন ২০২১ তারিখের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিবন্ধিত হবে। উক্ত সময়ের মধ্যে সচল কোনো হ্যান্ডসেটই অনিবন্ধিত থাকবে না।

৩০শে জুনের মধ্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হ্যান্ডসেট রেজিস্ট্রেশন হয়েছে কি না তা জানার উপায় কী? স্ব্যংক্রিয়ভাবে না হলে পরবর্তী পদক্ষেপ কী?

স্বয়ংক্রিয়ভাবে রেজিস্ট্রেশন না হলে এসএমএস যাবে। কোনো এসএমএস না গেলে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে রেজিস্ট্রেশন হয়েছে মর্মে গণ্য হবে। শুধু বিদেশ থেকে আনা এবং শুধু বিদেশ থেকে প্রাপ্ত হ্যান্ডসেটের ক্ষেত্রে রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ থাকবে। দেশে ক্রয়কৃত হ্যান্ডসেট অবৈধ হলে তা রেজিস্ট্রেশনের সুযোগ থাকবে না। ক্রয়ের পূর্বে হ্যান্ডসেটের বৈধতা যাচাই করার সুযোগ রয়েছে।

অনেক আগে কেনা আনঅফিসিয়াল ফোনে ৩০শে জুন তারিখে কোনো সিম একটিভ না থাকলে বা কোনো কারণে ওইদিন নেটওয়ার্কে যুক্ত না থাকায় হ্যান্ডসেট রেজিস্টার না হলে পরবর্তীতে কী করণীয়?

পরীক্ষামূলক সময়ে হ্যান্ডসেটটি ব্যবহার করা যাবে। সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মোবাইল অপারেটরের গ্রাহকসেবা কেন্দ্র থেকে এনইআইআর সংক্রান্ত কী কী ধরনের সেবা দেয়া হবে? নিবন্ধন সংক্রান্ত সমস্যা সমাধানে মোবাইল অপারেটরগুলো অপারগ হলে গ্রাহকের করণীয় কী?

এনইআইআর সংক্রান্ত সকল সেবা প্রদানের জন্য মোবাইল অপারেটরসমূহকে ইতোমধ্যে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে এবং সে অনুযায়ী মোবাইল অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার নম্বর ১২১-এ ডায়াল করে এবং অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার সেন্টার হতে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। কোনো কারণে মোবাইল অপারেটরগণ সেবা প্রদানে অপারগ হলে বিটিআরসি’র হেল্প ডেস্ক নম্বর ১০০-তে ডায়াল করে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। এনইআইআর সংক্রান্ত সকল তথ্যাদি http://neir.btrc.gov.bd-তে দেয়া রয়েছে।

১টা সিম কার্ড এর সাথে হ্যান্ডসেট নিবন্ধন হয়ে গেলে পরবর্তীতে নতুন সিম কার্ডের সাথে নিবন্ধন করা যাবে কি না?

পরীক্ষামূলক সময়কালে তিন মাস ডি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই হ্যান্ডসেট হস্তান্তর করা যাবে। উল্লেখ্য যে, একজন গ্রাহক নিজ নামে রেজিস্ট্রিকৃত যেকোনো সিম দিয়ে যেকোনো হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে ডি-রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

*১৬১৬১# USSD ডায়াল করে ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেটের বর্তমান অবস্থা যাচাই প্রক্রিয়া এখনো অ্যাকটিভ না, কবে নাগাদ অ্যাকটিভ হবে?

আগামী ০১ জুলাই ২০২১ তারিখ হতে *১৬১৬১# USSD ডায়াল করে ব্যবহৃত মোবাইল হ্যান্ডসেটের বর্তমান অবস্থা যাচাই করা যাবে।

আন্তর্জাতিক ও দেশি ই-কমার্স থেকে মোবাইল কেনার ক্ষেত্রে তো বৈধতা যাচাইয়ের কোনো সুযোগ থাকছে না, সেক্ষেত্রে করণীয় কি?

দেশি ই-কমার্স থেকে মোবাইল ক্রয়ের পূর্বে অবশ্যই হ্যান্ডসেটটির বৈধতা মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে KYD১৫ ডিজিটের IMEI নম্বর লিখে ১৬০০২ নম্বরে প্রেরণের মাধ্যমে যাচাই করা যাবে।

বিদেশ থেকে ব্যক্তি পর্যায়ে বৈধভাবে ক্রয়কৃত অথবা উপহারপ্রাপ্ত হ্যান্ডসেট স্বয়ংক্রিয়ভাবে নেটওয়ার্কে সচল হবে। দশ দিনের মধ্যে অনলাইনে তথ্য/দলিল প্রদান করে নিবন্ধন করার জন্য এসএমএস প্রদান করা হবে। দশ দিনের মধ্যে নিবন্ধন সম্পন্ন করলে উক্ত হ্যান্ডসেট বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে। উক্ত সময়ের মধ্যে নিবন্ধন সম্পন্ন করা না হলে হ্যান্ডসেটটি বৈধ হিসেবে বিবেচিত হবে না এবং সেগুলো সম্পর্কে গ্রাহককে এসএমএস-এর মাধ্যমে অবহিত করে পরীক্ষাকালীন সময়ের জন্য নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রাখা হবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যেহেতু MSISDN ও NID-এর মাধ্যমে মোবাইল নিবন্ধিত হচ্ছে, সেটা পরবর্তীতে মালিকানা পরিবর্তনের সুযোগ আছে কি?

পরীক্ষামূলক সময়কালে তিন মাস ডি-রেজিস্ট্রেশন ছাড়াই হ্যান্ডসেট হস্তান্তর করা যাবে। উল্লেখ্য যে, একজন গ্রাহক নিজ নামে রেজিস্ট্রিকৃত যেকোনো সিম দিয়ে যেকোনো হ্যান্ডসেট ব্যবহার করতে পারবে। পরীক্ষামূলক সময় অতিবাহিত হলে ডি-রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হবে।

হ্যান্ডসেট ক্রয়ের ক্ষেত্রে কোনো প্রকার অবৈধতা সম্পর্কে ক্ষতিগ্রস্থ গ্রাহক কোথায় যোগাযোগ করবে?

এনইআইআর সংক্রান্ত সকল সেবা প্রদানের জন্য মোবাইল অপারেটরসমূহকে ইতোমধ্যে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে এবং সে অনুযায়ী মোবাইল অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার নম্বর ১২১ ডায়াল করে এবং অপারেটরগণের কাস্টমার কেয়ার সেন্টার হতে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। কোনো কারণে মোবাইল অপারেটরগণ সেবা প্রদানে অপারগ হলে বিটিআরসি'র হেল্পডেস্ক নম্বর ১০০-তে ডায়াল করে এ সম্পর্কিত সেবা গ্রহণ করা যাবে। এনইআইআর সংক্রান্ত সকল তথ্যাদি http://neir.btrc.gov.bd-তে দেয়া রয়েছে।

আরও দেখুন

 

 

grameenphone